Samhati
৪:৫৭ পিএম
০৮ জুন ২০১৪

নির্বাচিত রচনা

কাজী নূর-উজ্জামান

নির্বাচিত রচনা

কর্নেল কাজী নূর-উজ্জামানের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে অবিচ্ছেদ্য একটি নাম। জাতির সংকট মুহূর্তে অবসর থেকে ফিরে সেক্টর কমান্ডারের মত নেতৃত্বমূলক অবস্থানে ভূমিকা রেখেছিলেন, এবং সেই নেতৃত্বের স্থান থেকে কখনো পিছু হটেননি। কাজী নূর-উজ্জামানের চেতনায় মুক্তিযুদ্ধের অর্থটা ছিল গভীরতর। লুণ্ঠন আর ব্যক্তিতান্ত্রিকতার যে জোয়ার একাত্তর পরবর্তী বাংলাদেশকে প্লাবিত করেছিল, যার আঘাতে তার সাবেক সহকর্মীদের একটা বড় অংশ হতাশ হয়েছেন কিংবা ছত্রভঙ্গ হয়েছেন, অনেকেই লুণ্ঠনের সহযোগী হয়েছেন কিংবা পরিস্থিতির স্রোতে গা ভাসিয়েছেন। কাজী নূর-উজ্জামান তার বিপরীত উদ্যোগী হয়েছেন একটি গণতান্ত্রিক ও মানবিক সমাজ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে, নেতৃত্ব দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাস্তবায়ন ও একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির মত সংস্থা গড়ে তোলায়, বিচিত্রতর সামাজিক ভূমিকাও তিনি রেখেছেন তার কর্মময় জীবনে। স্বদেশ চিন্তা সঙ্ঘ, বাঙলাদেশ লেখক শিবির, গণতান্ত্রিক সংস্কৃৃতি ফ্রন্ট, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিকাশ কেন্দ্রের তিনি ছিলেন অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং ফ্যাসিবাদবিরোধী গণতান্ত্রিক কমিটির আহ্বায়ক।

একাত্তরের ঘাতক ও দালালরা কে কোথায় গ্রন্থের তিনি অন্যতম সম্পাদক এবং তার সম্পাদনাতেই প্রকাশিত হয় সাপ্তাহিক নয়াপদধ্বনি।

কাজী-নূর-উজ্জামান প্রত্যক্ষ রাজপথের লড়াইয়ে যুক্ত থাকার পাশাপাশি অজস্র লিখেছেন। সাধারণ ক্ষমার মধ্য দিয়ে যুদ্ধাপরাধীদের বড় অংশকে মুক্ত করে দেয়ার বিরুদ্ধে কথা বলেছেন, সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন। কৃষির পুনর্গঠন, সাম্রাজ্যবাদী শোষণ থেকে মুক্তির জন্য সংগ্রাম করেছেন। তার সে সকল রচনায় বিশেষ করে ৭০ ও ৮০-র দশকের বাংলাদেশের রাজনৈতিক সংগ্রামের চিত্রটা গভীরভাবে ফুট উঠেছে। তার মুক্তিযুদ্ধের স্মতিচারণামূলক গ্রন্থ একজন সেক্টর কমান্ডারের স্মৃতিকথা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের একটি অনন্য দলিল।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনার মর্মমূলে যারা পৌঁছুতে চান, তাদের জন্য অপরিহার্য গ্রন্থ এটি। মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী দুই দশকের রাজনীতি-অর্থনীতির প্রসঙ্গগুলো বোঝাপড়া করতে চান তাদেরও চিন্তার খোরাক মেটাবে কর্নেল কাজী নূর-উজ্জামানের নির্বাচিত রচনা।

প্রকাশকাল: মে ২০১৪
প্রচ্ছদ: সব্যসাচী হাজরা
দাম: ৬৫০ টাকা/ ২০ ডলার
আইএসবিএন: ৯৭৮-৯৮৪-৮৮৮-২৮৭-০